শেভরন বাংলাদেশের প্রেসিডেন্টকে সন্মাননা

0
9

স্কুলের মান উন্নয়ন এবং লেখাপড়ার সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরিতে অবদানের জন্য শেভরন বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট কেভিন লায়নকে সম্মাননা জানানো হয়েছে। সম্প্রতি নবীগঞ্জ উপজেলায় (হবিগঞ্জ) অবস্থিত নাদামপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে স্কুল কর্তৃপক্ষ এ সন্মাননা জানায়। শেভরনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
বর্তমানে শেভরন ১৭টি স্কুলে আর্থিক সহায়তা করছে। এরমধ্যে এই স্কুলও আছে। সম্প্রতি সিলেট শিক্ষা বোর্ড এই স্কুলকে সেরা স্কুল নির্বাচিত করায় এই অভ্যর্থনা অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।
বিবিয়ানায় শেভরন বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট কেভিন লায়ন এ সময় স্কুলটি পরিদর্শন করেন। ২০০৬ সাল থেকে শেভরন বাংলাদেশ নাদামপর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বিভিন্ন সহায়তা দিয়ে আসছে। বৃত্তি দেয়া ছাড়াও অনুদান তহবিল, অতিরিক্ত শিক্ষক নিয়োগে অনুদান, স্কুলের কম্পিউটার ল্যাব প্রতিষ্ঠা এবং স্কুল ইউনিফর্ম ও খেলার সরঞ্জাম কিনতে আর্থিক সহায়তা দিয়েছে শেভরন।
২০১১ সাল থেকে এখন পর্যন্ত মাধ্যমিক পরীক্ষায় নাদামপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের পাসের হার শতকরা ১০০ ভাগ। এছাড়া ২০১৪ সালে স্কুল থেকে এ+ পাওয়া নয়জন ছাত্রের ৮ জনই শেভরনের স্কলারশীপ প্রাপ্ত। অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে স্কুলের প্রধান শিক্ষক প্রদীপ রঞ্জন দাস কেভিন লায়নকে স্মারক ক্রেস্ট তুলে দেন। প্রধান শিক্ষক বলেন, আমাদের স্কুলের শিক্ষার মান উন্নয়নে শেভরনের অবদান অপরিসীম এবং আমরা শেভরন বাংলাদেশের কাছে ঋণী। অন্য স্কুলের মতো আমাদেরও লক্ষ্য জাতির ভবিষ্যত কর্ণধার গড়া এবং এই সাফল্যেও পর এই স্কুল এখন সবার আশার বাতিঘর। এজন্য আমরা চিরকৃতজ্ঞ। কেভিন লায়ন বলেন, আমি জেনে অভিভূত হয়েছি যে সবমিলিযে যে নয়জন ছাত্র এ+ পেয়েছে তার মধ্যে আটজনই শেভরনের স্কলারশীপ প্রাপ্ত। আমাদের সহায়তা তোমাদের সাফল্যে ভূমিকা রাখতে পেরেছে এটা জানা আমাদের জন্য অত্যান্ত আনন্দের।
শেভরন বাংলাদেশ ২০১৪ সালে সিলেটের ৩৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১ হাজার ৬৬০ ছাত্রছাত্রীকে বৃত্তি দিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here