সৌরশক্তিচালিত উড়োজাহাজের বিশ্বভ্রমণ শুরু

0
5

কোনো ধরনের জ্বালানি ছাড়া কেবল সৌরশক্তিতে পরিচালিত উড়োজাহাজ ‘সোলার ইমপালস-২’ বিশ্বভ্রমণ শুরু করেছে। সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে উড়াল দেওয়া এ উড়োজাহাজ পুরো বিশ্ব ঘুরে পাঁচমাস পর ওমানের রাজধানী মাস্কটে এ মহাকাব্যিক যাত্রার সমাপ্তি টানবে।
সোমবার আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবির আল বাতেন এক্সিকিউটিভ বিমানবন্দর থেকে স্থানীয় সময় সকাল ৭টায় সৌরচালিত এই উড়োজাহাজ তার বিশ্বযাত্রা শুরু করে।
পাঁচ মাসের এ যাত্রায় উড়োজাহাজটি মহাদেশ থেকে মহাদেশে উড়ে বেড়াবে। পাড়ি দেবে প্রশান্ত ও আটলান্টিক মহাসাগরও।
এক আসনের সৌরচালিত এই উড়োজাহাজের নিয়ন্ত্রণে আছেন সুইজারল্যান্ডের অ্যান্ড্রু বরশবার্গ নামে একজন বিশেষজ্ঞ পাইলট। আর তার সঙ্গে দায়িত্ব ভাগ করে নিতে রয়েছেন স্বদেশী বার্ট্রেন্ড পিকার্ড।
উড়োজাহাজটি বিশ্রাম ও কারিগরি সহায়তার জন্য এবং শুদ্ধ প্রযুক্তির বার্তা ছড়িয়ে দিতে বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে যাত্রাবিরতি নেবে।
৭২ মিটার লম্বা ডানার উড়োজাহাজটির ওজন ২.৩ টন। সাধারণত একটি বোয়িং ৭৪৭-৮১ প্লেন ডানাসহ ৬৮.৫ মিটার প্রশস্ত হয়ে থাকে। শক্তির উৎস হিসেবে সৌরচালিত এই উড়োজাহাজের ডানার উপর বসানো রয়েছে ১৭ হাজার সৌরকোষ। সেই সঙ্গে রাত্রিকালে উড্ডয়নের জন্য শক্তির নিরবচ্ছিন্ন সরবরাহ বজায় রাখতে এতে রয়েছে লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি।
অবশ্য, উড়োজাহাজটি পরিচালনায় বেশ ঝামেলা পোহাতে হবে বরশবার্গ এবং পিকার্ডকে। কারণ, বিস্ময়কর এই আকাশযান চালানোর সময় দায়িত্বরত পাইলট ২০ মিনিটের বেশি করে ঘুমানোর সুযোগ পাবেন না। তাছাড়া, এর ককপিটে রয়েছে জায়গা স্বল্পতা। টেলিফোন বুথের মতো ছোট্ট এই জায়গায় বেশ অস্বস্তিতেই থাকতে হবে দায়িত্বরত পাইলটকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here