বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে হবে – রাস্ট্রপতি

0
2

বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হওয়ার পাশপাশি এ খাতে ‘সিস্টেম লস’ কমাতে সংশ্লিষ্ঠদের প্রতি আহবান জানিয়েন রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ। তিনি বলেছেন, ভবিষ্যৎ প্রজন্মের প্রতি দায়বদ্ধতা থেকে ‘যথেচ্ছ’ বিদ্যুৎ ব্যবহারের মানসিকতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।
বৃহস্পতিবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে জাতীয় বিদ্যুৎ সপ্তাহ-২০১৪ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি এ আহবান জানান।
বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব মনোয়ার ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মো. তাজুল ইসলাম বক্তব্য দেন।
রাষ্ট্রপতি বলেন, দায়বদ্ধতা থেকে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য জ্বালানি নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করতে হবে। বিদ্যুৎ উৎপাদন অত্যন্ত ব্যয়বহুল কার্যক্রম। এতে প্রচুর অর্থ বিনিয়োগের প্রয়োজন। তাই ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কথা ভেবে বিদ্যুৎ ব্যবহারে আমাদের সাশ্রয়ী হতে হবে। জীবাশ্ম জ্বালানির ওপর র্নিভরতা কমিয়ে পরিবেশবান্ধব নবায়নযোগ্য জ্বালানির ব্যবহার বাড়াতে হবে।
রাষ্ট্রপতি বলেন, বর্তমানে দেশের ৬৮ শতাংশ মানুষ বিদ্যুৎ সুবিধা ভোগ করছে। অবশিষ্ট জনগোষ্ঠীর মাঝে ২০২১ সালের মধ্যে বিদ্যুৎ সুবিধা পৌঁছাতে সরকার লক্ষ নির্ধারণ করছে। এ পর্যন্ত তিন লাখ তিন হাজার কিলোমিটার বিতরণ লাইন করা হয়েছে, যার মধ্যে বিগত ৬ বছরে নির্মিত হয়েছে ৪৩ হাজার কিলোমিটার। এর মাধ্যমে এক কোটি ৫৬ লক্ষ গ্রাহককে বিদ্যুৎ সংযোগের আওতায় আনা হয়েছে।
বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, সরকার জনগণের ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ভারত থেকে বিদ্যুৎ আমদানি করা হচ্ছে। ভূটান ও নেপাল থেকেও বিদ্যুৎ আমদানির প্রক্রিয়া চলছে।
বিদ্যুৎ সপ্তাহের উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার দেন। এ বছর বিদ্যুৎ নিয়ে প্রতিবেদনের জন্য সেরা প্রতিবেদকের পুরস্কার পান দৈনিক সমকালের রফিকুল বাসার ও জনকন্ঠের রশিদ মামুন। তাদের হাতে ক্রেষ্ট, সনদ ও প্রত্যেকে ২৫ হাজার টাকার চেক তুলে দেন রাষ্ট্রপতি।
পরে রাষ্ট্রপতি বিদ্যুৎ মেলার উদ্ভোধন করেন ও বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখেন। তিনদিনব্যাপী বিদ্যুৎ মেলায় সরকারি-বেসরকারি মোট ৯৭টি প্রতিষ্ঠান অংশ নিচ্ছে। মেলায় সেমিনার ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। মেলা ও সেমিনারে দেশি-বিদেশি উদ্যোক্তা, বিনিয়োগকারী ও বিশেষজ্ঞরা অংশ নিয়েছেন।
‘জ্বলছে আলো, চলছে দেশ, এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ’ শীর্ষক শ্লোগানকে সামনে নিয়ে গত ৭ ডিসেম্বর শুরু হয়েছে ‘বিদ্যুৎ সপ্তাহ’। বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিকভাবে বিদ্যুৎ সপ্তাহের উদ্ভোধন করা হয়। মেলা প্রতিদিন সকাল ১০ থেকে রাত আটটা পর্যন্ত সকলের জন্য খোলা থাকবে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here