বরগুনায় গাছে গাছে বিদ্যুতের লাইন

0
4

বরগুনার সদর উপজেলার তিনটি গ্রামে গাছে গাছে ঝুলছে বিদ্যুতের সঞ্চালন লাইন। এ লাইনের তার ছিঁড়ে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা।
এলাকার অনেকে জানান, পশ্চিমাঞ্চলীয় বিদ্যুৎ বিতরণ সংস্থা (ওজোপাডিকো) ২০০৫ সালের প্রথম দিকে বরগুনা সদর উপজেলার পূর্ব ধূপতি, পশ্চিম ধূপতি, ভূতমারা ও হেউলিবুনিয়া গ্রামে রাস্তার পাশের গাছের সঙ্গে ১০ কিলোমিটার সঞ্চালন লাইন টেনে ওই সব গ্রামের প্রায় এক হাজার গ্রাহককে বিদ্যুৎ-সংযোগ দেয়। অনিরাপদ এই বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের তার ছিঁড়ে মাঝেমধ্যে দুর্ঘটনা ঘটছে।
ওজোপাডিকোর বরগুনা কার্যালয়ের কর্মকর্তারা জানান, চলতি বছর ২১ জেলা শহর প্রকল্পের আওতায় পূর্ব ধূপতি ও ভূতমারা এলাকারচার কিলোমিটার খুঁটি বসানো হয়েছে। তবে বাকি ছয় কিলোমিটার সঞ্চালন লাইন এখনো গাছের সঙ্গে ঝুলছে।
সরেজমিন দেখা যায়, সদরের ভূতমারা এলাকার ইটভাটা থেকে ধূপতি মাতুব্বর বাড়ি পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার; ভূতমারা থেকে সুজার খেয়া পর্যন্ত আধা কিলোমিটার; হেউলিবুনিয়া গ্রামে চার কিলোমিটার বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন টানা হয়েছে সড়কের পাশের তুলা, গাব, খেজুর, মেহগনি, রেইনট্রিসহ অন্যান্য গাছের সঙ্গে।
পূর্ব ধূপতি এলাকার গৃহবধূ অঞ্জলি রানি বলেন, ‘সামান্য ঝড়-বৃষ্টি হলে এসব তার ছিঁড়ে যায়। কয়েক বছর আগে এলাকার একটি ছেলে তড়িতাহত হলে ছেলেটির ডান হাতের একটি আঙুল খোয়া যায়।’
একই এলাকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘গাছের সঙ্গে লাইন টানায় আমরা সব সময় আতঙ্কে থাকি।’
বরগুনা বিদ্যুৎ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী এ টি এম তারিকুল ইসলাম বলেন, বর্তমানে একটি প্রকল্পের আওতায় খুঁটি স্থাপনের কাজ চলছে। এরপর কিছু কাজ বাকি থাকলে পরে সেসব লাইনেও খুঁটি স্থাপন করা হবে।
সূত্র: প্রথম আলো

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here