গ্যাস কূপ খননে প্রথমবার আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় বাপেক্স

0
2

গ্যাস কূপ খনন করতে প্রথমবারের মতো বিদেশি কোম্পানির সাথে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে বাপেক্স। কুমিল্লার বাঙ্গুরা গ্যাসক্ষেত্রের দুইটি কূপ খননের কাজের জন্য রাস্ট্রীয় এই কোম্পানি দরপ্রস্তাব কিনেছে। রাশিয়া, চিনসহ কয়েকটি দেশের বড় বড় কোম্পানিও এই কাজের দরপ্রস্তাব কিনেছে বলে জানা গেছে।
সিঙ্গাপুর ভিত্তিক ক্রিস এনার্জি বর্তমানে বাঙ্গুরা গ্যাসক্ষেত্রটি পরিচালনা করছে। তারা বাঙ্গুরা-৬ ও ৭ নম্বর কূপ খননের জন্য গত মে মাসে আন্তর্জাতিক দরপত্র আহবান করে। প্রস্তাব জমা দেয়ার শেষ দিন ২৮ জুন দরপ্রস্তাব জমা দিয়েছে বাপেক্স। সেপ্টেম্বর মাসে দরপ্রস্তাব চূড়ান্ত হওয়ার কথা। বাপেক্স কাজ পেলে অক্টোবরেই কূপ খনন শুরু করবে বলে জানা গেছে।
এ বিষয়ে বাপেক্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আতিকুজ্জামান বলেন, বাপেক্স এর আগে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বিদেশী কোন কোম্পানির কাজ করেনি। এই কাজ পেলে অর্থনৈতিক লাভ তো হবেই। তবে সেটা খুবই কম। অর্থনৈতিক লাভের চেয়ে আত্নবিশ্বাস হওয়ার লাভের দিকে বেশি নজর দেয়া হয়েছে।
সূত্র জানায়, বাপেক্সসহ তিনটি আন্তর্জাতিক তেল গ্যাস কোম্পানি এই কূপ খননের কাজে আগ্রহ দেখিয়েছে। এরমধ্যে গ্যাজপ্রমের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এরিয়াল এবং চিনের সিনোপ্লেক্স উল্লেখযোগ্য।
বাপেক্স এই কাজ পেলে খনন কাজের জন্য রিগ (খননযন্ত্র) বিজয়-১০ ব্যবহার করবে। যা বাপেক্সের সবচেয়ে নতুন রিগ। এই রিগ গ্যাজপ্রমের রিগের তুলনায় আধুনিক।
২০১৪ সালের প্রথম থেকে বাঙ্গারা পরিচালনা করছে ক্রিস এনার্জি। এরআগে এই ক্ষেত্রর দায়িত্বে ছিল টাল্লো। টাল্লো বাংলাদেশসহ কয়েকটি দেশ থেকে তাদের ব্যবসা গুটিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। পরে তারা ক্রিস এনার্জির কাছে তাদের শেয়ার হস্তান্তর করে চলে যায়।
কুমিল্লা জেলার বাঙ্গারায় অবস্থিত এটি নয় নম্বর গ্যাসব্লক। এক হাজার ৭৭০ বর্গ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে এই ব্লকের অবস্থান। এক্ষত্রের  উত্তোলনযোগ্য গ্যাসের মজুদ আছে ৩০৯ বিলিয়ন ঘনফুট। গত বছর প্রতিদিন গড়ে ১০৮ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন করা হয়েছে। এবছর হচ্ছে গড়ে ৮০ মিলিয়ন ঘনফুট।
গ্যাসের উৎপাদন বাড়ানোর জন্য নতুন করে দুটি কূপ খননের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here