গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রয়োজন নেই

0
8

গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রয়োজন নেই।প্রতিঘনমিটার গ্যাস বিক্রি করে তিতাস ৫৫ পয়সা লাভ করছে।
বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) কারিগরি মূল্যায়ন কমিটি তাদের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে।
মঙ্গলবার তিতাস গ্যাস ট্রন্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি’র (তিতাস গ্যাস) দাম বাড়ানো প্রস্তাবের ওপর অনুষ্ঠিত বিইআরসির গণশুনানীতে এ প্রতিবেদন  উপস্থাপন করা হয়। টিসিবি মিলনায়তনে এ শুনানী অুষ্ঠিত হয়।
বিইআরসি চেয়ারম্যান এ আর খান, সদস্য ড. সেলিম মাহমুদ, প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন, রহমান মুরশেদ ও মাকসুদুল হক শুনানী পরিচালনা করেন।
ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, দেশে গ্যাস ব্যবহারে বিভিন্নভাবে বৈষম্য আছে। বৈষম্যের কারণে পণ্য উৎপাদন খরচে পার্থক্য হচ্ছে। এই পার্থক্য সন্বনয় হওয়া উচিত।বিইআরসি, বিতরণ কোম্পানি, গ্রাহক পর্যায় সকলেই এই দাম সমন্বয় করা প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন। বিজিএমইএ, রাজনৈতিক দল এবং গ্রাহকদের পক্ষ থেকে গ্যাসের দাম না বাড়ানোর দাবি জানানো হয়েছে।
শুনানীতে কারিগরি কমিটি জানিয়েছে, প্রতি ঘনমিটার ২৯ পয়সা হলেই তিতাসের লাভ হয়। প্রতিঘনমিটারে আয় হয় ৯৭ পয়সা। এরমধ্যে ৫৫পয়সা আয় হয় বিতরণ থেকে। বাকী ৪২ পয়সা আয় হয় পরিচালন ও অন্য খাত থেকে। শুনানীতে তিতাসের হিসাবে অনিয়মসহ নানা বিয়য় তুলে ধরা হয়।
বিইআরসি চেয়ারম্যান বলেন, ২৪ ঘন্টা চুলা জ্বালিয়ে রাখলেও মাসে ৪৫০ টাকা বিল আসে না।
তিতাসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নওশেদ আলম, পরিচালক (অর্থ) শঙ্কর কুমার দাশসহ অন্যরা তিতাসের প্রস্তাব উপস্থাপন করেন।
তিতাস জানিয়েছে সরকার গ্যাসের পণ্যমূল্য প্রতিহাজার ঘনমিটার ২৫ টাকা করার নির্দেশ দিয়েছে। সে কারণে গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব দেয়া হয়েছে।
সরকারের এই নির্দেশনা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন ক্যাবের জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টা অধ্যাপক শামসুল আলম। তিনি বলেন, দেশের আইন অনুযায়ি জ্বালানি বিভাগ দাম বাড়ানোর নির্দেশ দিতে পারে না। বিইআরসিই শুধু গ্যাসের দাম বাড়ানোর ক্ষমতা রাখে।
প্রকেৌশল বিশ্বদিব্যালয়ের অধ্যাপক ড. নুরুল ইসলাম বলেন, তিতাস এমনভাবে প্রস্তাবনা দিয়েছে যাতে কেউ না বুঝতে পারে।  মনে হয় মানুষ যাতে বুঝতে না পারে তারা বুঝে শুনেই এমন প্রস্তাব করেছে।
আবাসিকে এক চুলা ৪০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৮৫০ টাকা, দুই চুলা ৪৫০ টাকার পরিবর্তে এক হাজার টাকা করার প্রস্তাব করেছে তিতাস গ্যাস।
বিকালে অনুষ্ঠিত পশ্চিমাঞ্চল গ্যাস কোম্পানির ৫দশমিক ৫৯ শতাংশ দাম বাড়ানো প্রয়োজন বলে বিইআরসি কারিগরি মূল্যায়ন কমিটি।পশ্চিমাঞ্চল ৪০ শতাংশ দামবাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছিল।
বুধবার বাখরাবাদ ও কর্ণফুলি গ্যাস কোম্পানি শুনানী হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here